জেলেদের জালে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ

0
3

বরিশাল প্রতিনিধি:
অবশেষে মৌসুমের শেষভাগে বরিশালের নদীতে জেলেদের জালে ধরা পরছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালী ইলিশ। শেষ ভাগে হলেও নদীতে ইলিশ ধরা পরায় এখানকার জেলেদের মাঝে ভিন্নরকম ঈদের আনন্দ বিরাজ করছে। গত এক সপ্তাহ থেকে সাগরের পাশাপাশি নদীর ইলিশ বোঝাই ট্রলার ফিরতে শুরু করেছে বরিশালের ইলিশ মোকাম শ্রমিকদের। যেকারণে কর্মব্যস্ততা বেড়েছে মোকামগুলোতে। সাথে কমেছে মাছের দামও।
জেলা মৎস্য আড়তদার সমিতির প্রচার সম্পাদক ইয়ার উদ্দিন সিকদার জানান, গত এক সপ্তাহ থেকে প্রতিদিন গড়ে প্রায় হাজার মণ করে ইলিশ আসছে বরিশালের মোকামে। সাগরের পাশাপাশি নদীতে ইলিশ মেলায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে মণ প্রতি গড়ে ১০ হাজার টাকা কম দামে ইলিশ বিক্রি হচ্ছে। বর্তমানে এক কেজি থেকে ১১শ’ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে প্রতি মণ ৪০ হাজার টাকা। গত এক সপ্তাহ পূর্বে এর দাম ছিল ৫২ হাজার টাকা। ১২শ’ থেকে সাড়ে ১২শ’ গ্রাম ওজনের ইলিশ প্রতিমণ বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ হাজার টাকা। গত সপ্তাহে তা বিক্রি হয়েছে ৭০ হাজার টাকায়। দেড় কেজি ওজনের সবচেয়ে বড় সাইজের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে প্রতি মণ ৯০ হাজার টাকা দরে। বড় সাইজের এ ইলিশের দেখা সহজে না মিললেও বর্তমানে তা পাওয়া যাচ্ছে। এ সাইজের ইলিশ প্রতি মণে কমেছে প্রায় ২৫ হাজার টাকা। এছাড়াও এলসি ছয়শ’ থেকে ৯৫০ গ্রাম ইলিশ প্রতি মণ ১০ হাজার টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৩০ হাজার টাকায়। পাঁচশ’ থেকে ছয়শ’ গ্রাম ইলিশ ২০ থেকে ২২ হাজার ও ছোট সাইজের ইলিশ প্রতি মণ ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ছোট সাইজের এ ইলিশের দামও প্রতি মণে পাঁচ থেকে সাত হাজার টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে।
জেলেরা জানান, বরিশালের মেঘনা, তেঁতুলিয়া, কীর্তনখোলা ও সন্ধাসহ বিভিন্ন নদীতে মৌসুমের শেষভাগে ইলিশ মিলতে শুরু করায় জেলে পরিবারগুলোর ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে শুরু করেছে। এখানকার জেলেরা সাগরে ইলিশ শিকার করেন না। তারা দীর্ঘ দুইমাস ধারদেনা কিংবা মহাজনদের কাছ থেকে দাদন নিয়ে নদী চষে বেড়িয়েও ইলিশের দেখা পাননি। যেকারণে ঈদ-উল-ফিতর ও ঈদ-উল-আজহায় এখানকার জেলেদের মাঝে তেমন কোনো আনন্দ ছিলনা। পরিবারের সদস্যদের জন্য ঈদের পোশাক তো দূরের কথা, ভালো খাবারও জোটেনি জেলে পরিবারগুলোতে। কিন্তু গত এক সপ্তাহ থেকে নদীতে ইলিশ মিলতে শুরু করায় জেলে পরিবারের মাঝে ভিন্নরকম ঈদের আনন্দ ফিরে এসেছে। গতকাল সকালে নগরীর পোর্ট রোডের মোকামে বসে জেলে ইউসুফ মাঝি জানান, গত সাতদিনে তিনি প্রচুর ইলিশ বিক্রি করেছেন। নগরীর নতুন বাজারে বসে কথা হয় ইলিশ ক্রেতা তানভির আহম্মেদ অভির সাথে। তিনি বলেন, চলতি বছর ইলিশের স্বাদ উপভোগ করতে পারিনি। এতোদিন সাগরের ইলিশ ক্রয় করলেও তার স্বাদ নদীর ইলিশের তুলনায় অনেক কম। এবার নদীর ইলিশ কম দামে কিনতে পেরে আমরা মহাখুশি।

LEAVE A REPLY