বকশীগঞ্জে নৌকা দেখলেই ত্রাণের আশায় ছুটছে বানভাসীরা

0
11

বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি, জামালপুর:
নদীতে নৌকা দেখলেই ত্রাণের আশায় ছুটে আসছে বানভাসী মানুষ। ত্রাণের আশায় নদীর দুই পাশে অধীর অপেক্ষায় পানিতে দাঁড়িয়ে থাকছেন তারা। গতকাল রবিবার উপজেলার বন্যাকবলিত এলাকা মেরুরচর ও সাধুরপাড়া ইউনিয়নে গিয়ে দেখা যায় এই দৃশ্য। তবে স্থানীয়রা জানান, সাবেক তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ এমপি ছাড়া কোনো জনপ্রতিনিধি বানভাসীদের জন্য এগিয়ে আসে নি।
জানা গেছে, উপজেলার মেরুরচর, সাধুরপাড়া ও বগারচর ইউনিয়ন দশানী ও ব্রহ্মপুত্র নদীবেষ্টিত। নদীবেষ্টিত ও নি¤œাঞ্চল হওয়ায় এবারের বন্যায় এই তিন ইউনিয়নের প্রায় ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। শতাধিক ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। টানাবর্ষণ ও একাধারে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্যাকবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানির অভাব দেখা দিয়েছে। এবারের বন্যায় বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মেরুরচর ইউনিয়নের কলকিহারা, ভাটি খেওয়ারচর, মাইছেনির চর, ফকিরপাড়া ও সাধুরপাড়া ইউনিয়নের চর আইড়মারী, কামালের বার্ত্তি গ্রাম।
কলকিহারা গ্রামের মজিবর রহমান বলেন, এমপি আবুল কালাম আজাদ ছাড়া জনপ্রতিনিধিসহ আর কেউ তাদের খোজঁ খবর নেয় নি।
মেরুরচর ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জেহাদ বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের  উদ্যোগে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ ও নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে। যারা বাদ পড়েছেন তাদেরকে দেওয়া হবে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসান সিদ্দিক জানান, সরকারিভাবে বরাদ্দকৃত ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY