ভিডিও প্রকাশের হুমকি দিয়ে ধর্ষণ; লিটনের আত্মসমর্পণ

0
10

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় নবম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে আরও কয়েকবার ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার আসামি লিটন আহম্মেদ (৪৩) আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।
গতকাল বেলা ১১টার দিকে টাঙ্গাইল জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের জন্য আবেদন করলে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। গত শুক্রবার দুপুরে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সখীপুর থানায় লিটনকে আসামি করে মামলা করেন। ছাত্রীটি ১৯ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা বলে স্থানীয়ভাবে করা ডাক্তারি প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে। এদিকে লিটনের ফাঁসির দাবিতে ওই ছাত্রীর বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আজ সোমবার মানববন্ধন করবে। ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি এ খবর নিশ্চিত করেন।
ছাত্রীর সঙ্গে কথা বলে ও মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে লিটনের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয় মেয়েটি। ওই দৃশ্য ভিডিও করা হয়। এরপর হুমকি দেওয়া হয়, ঘটনাটি প্রকাশ পেলে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়া হবে এবং মেয়ের মা-বাবাকে মেরে ফেলা হবে। এই ভয় দেখিয়ে আরও ছয়-সাতবার মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়। একপর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে ঘটনাটি প্রকাশ পায়। মেয়েটির পরিবার গত ২৩ আগস্ট স্থানীয় একটি ক্লিনিকে মেয়েটির আলট্রাসনোগ্রাফি করায়। ওই প্রতিবেদনে মেয়েটি ১৭ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা বলে উল্লেখ করা হয়।
এ বিষয়ে সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকছুদুল আলম বলেন, লিটন পুলিশের কাছে ধরা না দিয়ে আজ সকালে আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। আদালতের হাকিম জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। লিটনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করার প্রস্তুতি চলছে।

 

LEAVE A REPLY