Date: July 17, 2024

দৈনিক বজ্রশক্তি

Header
collapse
...
Home / সারাদেশ / রংপুর / রংপুরে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি পেলেন হেযবুত তওহীদের তিন সদস্য

রংপুরে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি পেলেন হেযবুত তওহীদের তিন সদস্য

April 16, 2023 08:32:03 PM   জেলা প্রতিনিধি
রংপুরে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি পেলেন হেযবুত তওহীদের তিন সদস্য

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রংপুরে হেযবুত তওহীদের প্রচার কার্যে বাঁধা প্রদান করে প্রশাসনকে ভুল বুঝিয়ে ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অভিযোগ এনে মামলা করা হয় সংগঠনটির তিন সদস্যের বিরুদ্ধে। দীর্ঘ সাত বছর মামলার রায়ে ওই তিন সদস্যকে অব্যহতি দেন আদালত।

রবিবার (১৬ এপ্রিল) দুপুরে রংপুর জুডিশিয়াল-১ আদালতের বিচারক হাসিনুর রহমান মিলন এ রায় দেন। এসময় আদালতে অব্যহতি প্রাপ্ত দুই সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

অব্যহতি প্রাপ্তরা হলেন, বদরগঞ্জের দিলালপুর নাহিরি এলাকার শহিদুল্লাহ'র ছেলে শরিফুল ইসলাম, বরগুনা জেলার নান্নু মিয়ার ছেলে আল আমিন, দিনাজপুর ফুলবাড়ী থানার কুসলপুর এলাকার মজিবর রহমানের ছেলে শামিনুর ইসলাম।

আদালত ও মামলা বিবরণে জানাযায়, বিগত ২০১৫ সালের ১৫ই নভেম্বর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলাধীন গোপীনাথপুর শালবাড়ী বাজারে অরাজনৈতিক আন্দোলন হেযবুত তওহীদের জনসচেতনতামূলক কাজ সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, সাম্প্রতিকতা, উগ্রবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক প্রচারপত্র প্রকাশনা বিক্রয়কালে স্থানীয় একটি মসজিদের খতিবের ইন্দনে কয়েকজন উগ্রপন্থী লোক বাধা সৃষ্টি করে। ওই উগ্রপন্থীরা স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে আটক করে। পরে স্থানীয় পুলিশ এসে তাদেরকে থানায় নিয়ে যায় এবং ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অভিযোগ এনে মামলা দেন।

দীর্ঘ সাড়ে সাত বছর মামলা চলাকালে মামলার বাদী বদরগঞ্জ থানার এসআই তৈয়ব আলী সরকারসহ মোট চার জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে গতকাল (১৬ এপ্রিল) হেযবুত তওহীদ সদস্যদের মামলা থেকে বেকুসুর খালাস প্রদান করেন আদালত।

মামলার আইনজীবী এ্যাডভোকেট বদরুল আমিন সেলিম বলেন, হেযবুত তওহীদ একটি বৈধ আইনমান্যকারী সংগঠন। তাদের প্রচার কাজে সরকার কর্তৃক কোন বিধিনিষেধ নেই। আমার মক্কেলের উপর ধর্ম অবমাননার মিথ্যা অভিযোগে হয়রানীমূলক মামলা করা হয়েছিলো। আমরা সেই বিষয়টি আদালতকে বুঝাইতে সক্ষম হয়েছি। আদালত আমাদের পক্ষে রায় দিয়েছেন। আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট।

এবিষয়ে হেযবুত তওহীদ রংপুর জেলা সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস শামীম বলেন, 'হেযবুত তওহীদ একটি আইনমান্যকারী আন্দোলন। আইনমান্যকারী আন্দোলন হয়েও দীর্ঘ সাড়ে সাত বছর ধরে একটি মিথ্যা মামলার ঘানি টানতে হলো আমাদের। এটা আমাদের বিচার বিভাগের একটা নেতিবাচক দিক। এতে নির্দোষ মানুষ অকারণে হয়রানির শিকার হয়। পার পেয়ে যায় উগ্রবাদীরা। আমরা বিচার প্রক্রিয়ার এই দীর্ঘসূত্রতার অবসান দাবি করি। সেই সাথে হেযবুত তওহীদের সদস্যদের বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলোও ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা। আমরা চাই দ্রুত সেগুলোরও নিষ্পত্তি করা হোক।'